ঢাকা

তাজমহল, সোনারগাঁও

বাংলার তাজমহল

বিশ্বের প্রাচীন সপ্তাশ্চর্য ভারতের আগ্রার তাজমহলের মডেল অনুসারে, আমাদের বাংলাদেশেও নির্মাণ করা হয়েছে তাজমহল। যা বাংলার তাজমহল (Banglar Tajmahal) নামে পরিচিত। এটি নির্মাণে আসল তাজমহলের সাথে মিল রাখার চেষ্টা করা হয়েছে।

বাংলার তাজমহল

এর চার কোনায় চারটি বড় বড় মিনার, মাঝখানে মূল ভবন যা স্বচ্ছ দামি পাথরে মোড়ানো। সামনে পানির ফোয়ারা, চারদিকে ফুলের বাগান, দুই পাশে দর্শনার্থীদের বসার স্থান। দূর থেকে দেখে মনে হয় যেন এটি সত্যিকারের তাজমহল। মূল ভবনের ভিতরে এর নির্মাণকারী আহসানউল্লা মনি এবং উনার স্ত্রী রাজিয়া দু’জনের কবরের স্থান সংরক্ষিত আছে।

বাংলার তাজমহল কোথায় অবস্থিত

বাংলার তাজমহল বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলায় পেরাব গ্রামে অবস্থিত। ঢাকা থেকে এর দুরুত্ব প্রায় ২২ কিলোমিটার। এর কাছাকাছি মিসরের পিরামিডের আদলে গড়ে তোলা হয়েছে পিরামিড। নির্মাণ করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ভাস্কর্য।

বাংলার তাজমহল কে নির্মাণ করেন

বাংলাদেশের বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, স্থানীয় এলাকার ধনবান বাসিন্দা, আহসানউল্লা মনি এই তাজমহল নির্মাণ করেন। এটি নির্মাণ করার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, দেশের অনেক দরিদ্র মানুষের পক্ষে আগ্রা যেয়ে প্রকৃত তাজমহল দেখার সামর্থ নাই। তাই তারা যেন এটি দেখে দেশে থেকেই তাজমহল দেখার স্বপ্ন পূরন করতে পারে।

বাংলার তাজমহল যাবার উপায়

বাংলার তাজমহল ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ধরে যাওয়া যায়। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক: ঢাকার গুলিস্থান, সায়দাবাদ, যাত্রাবাড়ী থেকে নরসিংদী, ভৈরব গামী যেকোন বাসে উঠে বরপা বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। ভাড়া ২০/২৫ টাকা। পরে সেখান থেকে সিএনজি বা অটো রিক্সায় তাজমহল। ভাড়া ২০ টাকা। ঢাকার কলাবাগান, সাইন্সল্যাব, শাহবাগ থেকে মেঘলা পরিবহন এর বাসে করেও যাওয়া যায় বরপা।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক

ঢাকার গুলিস্থান, সায়দাবাদ, যাত্রাবাড়ী থেকে নরসিংদী, ভৈরব গামী যেকোন বাসে উঠে বরপা বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। ভাড়া ২০/২৫ টাকা। পরে সেখান থেকে সিএনজি বা অটো রিক্সায় তাজমহল। ভাড়া ২০ টাকা। ঢাকার কলাবাগান, সাইন্সল্যাব, শাহবাগ থেকে মেঘলা পরিবহন এর বাসে করেও যাওয়া যায় বরপা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

ঢাকার গুলিস্থান, সায়দাবাদ, যাত্রাবাড়ী থেকে সোনারগাঁও, দাউদকান্দি গামী যে কোন বাসে উঠে মদনপুর বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। পরে সেখান থেকে সিএনজি বা অটো রিক্সায় তাজমহল। এছাড়া কুড়িল বিশ্বরোড দিয়ে গাউছিয়া হয়েও তাজমহল যাওয়া যায়।

সময়সূচি, টিকেটের মূল

প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত তাজমহল খোলা থাকে। তাজমহল এবং পিরামিড দেখার টিকেটের মূল্য জনপ্রতি ১৫০ টাকা। আলাদা করে যে কোন একটা দেখার সুযোগ নাই।

আশেপাশের দর্শনীয় স্থান

তাজমহল দেখতে বেশি সময় লাগেনা। তাই আরো দেখতে পারেন পাশেই নির্মিত মিশরের পিরামিড এর আদলে নির্মিত ডামি পিরামিড। এছাড়া সময় থাকলে আরো দেখতে পারেন এর কাছাকাছি আরো কিছু স্থান:

4 1 ভোট
রেটিং

লেখক

রাশেদুল আলম

আমি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, ট্রাভেল ফটোগ্রাফার। তথ্য-প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করলেও ঘুরে বেড়াতে ভীষণ ভালোবাসি। নিজের ভ্রমণ অভিজ্ঞতা এবং জ্ঞান কে এই ওয়েব সাইটে নিয়মিত শেয়ার করার চেষ্টা করি।

0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
সব মন্তব্য দেখুন
0
আমরা আপনার অভিমত আশা করি, দয়াকরে মন্তব্য করুনx
()
x