ঢাকা

গোলাপ গ্রাম, সাদুল্লাপুর

গোলাপ গ্রাম

গোলাপ গ্রাম (Golap Gram) ঢাকার কাছে অল্প খরচে, স্বল্প সময়ে পরিবার বা বন্ধু বান্ধব দিয়ে ঘুরে আসার জন্য দারুন এক জায়গা। গ্রামের ভেতর দিয়ে চলে গেছে আঁকাবাঁকা সরু পথ। পথের ধার ঘেঁষে অসংখ্য গোলাপের বাগান। যত দূর চোখ যায়, শুধু লাল গোলাপের সমারোহ।

গোলাপ গ্রাম কোথায় অবস্থিত

গোলাপ গ্রাম বাংলাদেশের ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার বিরুলিয়া ইউনিয়নে সাদুল্লাহপুর গ্রামে অবস্থিত। শুধু সাদুল্লাহপুর নয়, আশপাশের শ্যামপুর, কমলাপুর, মোস্তাপাড়া, বাগ্মীবাড়ি গ্রামেও গোলাপের চাষ হয়। এই গ্রামগুলো এখন ‘গোলাপ গ্রাম’ নামেই বেশি পরিচিত। তুরাগ নদীর তীরে এই গোলাপ গ্রাম।

গোলাপ গ্রাম কিভাবে যাবেন

গোলাপ গ্রাম বিভিন্ন ভাবে যাওয়া যায়। মিরপুর -১ নম্বর সেকশন হতে বাস/ রিক্সা/অটো তে মাজার গেটের কাছে দিয়াবাড়ি মোড় নামতে হবে। এই মোড়ের কাছেই দিয়াবাড়ি বটতলা ঘাট। এই ঘাট থেকে ৩০ মিনিট পর পর ইঞ্জিন চালিত নৌকা সাদুল্লাপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। ভাড়া ২৫ টাকা, সময় নিবে ৩০-৪০ মিনিট। চাইলে স্পিডবোট, কোষা নৌকা ভাড়া নিয়েও যেতে পারেন। রিজার্ভ ভাড়া স্পিডবোট ৫০০, কোষা নৌকা ৩০০, ইঞ্জিন চালিত নৌকা ২৫০ টাকা। নৌকা গুলো সকাল ৬:৩০ থেকে সন্ধ্যা ৫:৩০ পর্যন্ত চলাচল করে। তাই সময় টা মাথায় রাখবেন। গাবতলী থেকে রিক্সা/অটো দিয়ে দিয়াবাড়ি বটতলা ঘাট যাওয়া যায়। আলিফ, মোহনা ইত্যাদি বাস যেগুলো মিরপুর হয়ে বেড়িবাঁধ দিয়ে রপ্তানী/কোনাবাড়ি/আব্দুল্লাপুর যায় সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

মিরপুর/টঙ্গী ষ্টেশন রোড/অথবা আব্দুল্লাহপুর থেকে বাস/সিএনজি দিয়ে বিরুলিয়া ব্রিজ। বিরুলিয়া ব্রিজ থেকে অটোতে আরকান বাজার। পরে সেখান থেকে অটোতে সাদুল্লাপুর। অটো ভাড়া ১০ + ১০ = ২০ টাকা। অথবা বিরুলিয়া ব্রিজ থেকে সরাসরি অটোতে সাদুল্লাপুর। ভাড়া ২০ টাকা।

গোলাপের হাট কখন বসে

প্রতিদিন সন্ধ্যায় শ্যামপুর গ্রামে আবুল কাশেম মার্কেটের সামনে গোলাপের হাট বসে। চলে গভীর রাত পর্যন্ত। ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পাইকারি, খুচরা ফুলের ব্যবসায়ীরা এখানে আসে ফুল কেনার জন্য। এছাড়া মোস্তাপাড়া গ্রামে সাবু মার্কেটে গোলাপের হাট বসে।

গোলাপ এর সিজন

গোলাপ বাগানে গোলাপ দেখতে সব থেকে সুন্দর লাগে শীতকালে। আর বেশি গোলাপ পাওয়া যায় জুন-জুলাই মাসে। তবে সারা বছরই কম বেশি গোলাপ, গোলাপ বাগানে দেখা যায়।

4.5 2 ভোট
রেটিং

লেখক

রাশেদুল আলম

আমি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, ট্রাভেল ফটোগ্রাফার। তথ্য-প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করলেও ঘুরে বেড়াতে ভীষণ ভালোবাসি। নিজের ভ্রমণ অভিজ্ঞতা এবং জ্ঞান কে এই ওয়েব সাইটে নিয়মিত শেয়ার করার চেষ্টা করি।

0 মন্তব্য
Inline Feedbacks
সব মন্তব্য দেখুন
0
আমরা আপনার অভিমত আশা করি, দয়াকরে মন্তব্য করুনx
()
x