কলকাতা ঘুরতে গেছেন আর কেনাকাটা করবেন না এমনটা হতেই পারে না। অনেকেই আবার শুধু কেনাকাটা করতেই কলকাতা যান। সস্তায় ভালো মানের পোশাক, জুতা আর গয়নার জন্য কলকাতা অতুলনীয়। কলকাতায় কোথায় কি পাবেন সেটা জানা না থাকলে পকেটের টাকা খরচ হবে ঠিকই কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হবেনা, মনের সাধ মিটবে না। তাই জেনে নিন বিস্তারিত-

কেনাকাটা করতে কম বেশি সবাই পছন্দ করে। আর সেটা যদি হয় কলকাতা তাহলে তো কোথায়ই নেই। এখানে কম দামে ভালো জিনিস পাওয়া যায়। তাইত বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর প্রচুর লোকজন ছুটে যায় কলকাতায়। রোজার ঈদের আগে এর সংখ্যা বাড়ে বহুগুন।

সব কিছু সস্তায় পাব এটা ভেবে আমিও যাই কলকাতা। কিন্তু যেয়ে দেখি ব্যাপারটা আসলে সেরকম নয়। লোকমুখে যে গল্প শুনেছি তার সাথে বাস্তবতার মিল নেই অনেক ক্ষেত্রেই। একটু খটকা লাগল? চলুন বিষয়টা একটু ক্লিয়ার করি। কলকাতার লোকজন একটু কৃপণ স্বভাবের, তার টাকা পয়সা খরচ করা থেকে জমাতে পছন্দ করে। পক্ষান্তরে বাংলাদেশের লোকজন পুরাই উল্টা। আমরা কামে অকামে প্রচুর টাকা খরচ করি। আমাদের কাছে প্রচুর টাকা আছে, আমরা টাকা খরচ করতে জানি, আর এখানে খরচ করার জন্যই এসেছি এটা কলকাতার লোকজন বুঝে গেছে। তাই অনেক সময়ই উল্টা পাল্টা দাম চায়। আমরা না জেনে, না বুঝে অনেক সময়ই তাদের খপ্পরে পরে যাই, আর বেশি টাকা দিয়ে আসি। তাই প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে সঠিক ট্রিপ্স গুলো জেনে রাখা জরুরী। আসুন জেনে নেই আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে তেমন কিছু দরকারি ট্রিপ্স।

কলকাতা নিউ মার্কেট
কলকাতা নিউ মার্কেট সম্বন্ধে নতুন করে বলার আর কিছু নেই। যারা শপিং ভালবাসে কলকাতায় এলে তারা সবাই এই এখানে একবার হলেও আসে। এমনকি বিদেশ থেকে আশা লোকজন ও এই ঐতিহ্যবাহী এলাকায় একবার হলেও আসে। এখানে আপনে মোটামোটি যা চাইবেন তার সবই পাবেন। ছেলে মেয়েদের শৌখিন ও সুন্দর জামা থেকে শুরু করে জুতা, রুমাল, সুঁচ, শাড়ি ইত্যাদি সব কিছুই পাবেন এখানে। তবে এখানে টাউট লোকের অভাব নাই। আপনে যদি সঠিক দাম না জানেন, আর বাংলাদেশ থেকে এসেছেন ওরা বুজতে পারে তাহলে খবর আছে। অনেক বেশি আর উল্টাপাল্টা দাম হাঁকাবে। তাই একটু সাবধানে থাকবেন।

ট্রেজার আইল্যান্ড
কম বাজেটে হালকা সাজে তাক লাগানো শাড়ী, হাতের কাজ করা জিনিস পাবেন এখানে। বাচ্চাদের পার্টি ড্রেস, ছেলেদের ভাল মানের পাঞ্জাবী এখানে কম দামে পাওয়া যায়। এখানে এমন কিছু দোকান আছে যাদের পাঞ্জাবি আমাদের দেশের নামিদামি মার্কেটের দোকানে বিক্রি হয়, কয়েকগুন বেশি দামে। আমি ১৮০০ রুপি দিয়ে যে পাঞ্জাবি নিয়েছিলাম ঢাকায় ওটা কম করে হলেও ৮০০০ – ১০,০০০ টাকা হবে।

মিলন /নিউ মিলন
নিউ মার্কেটের কাছে ট্রেজার আইল্যান্ড এর বিপরীত পাশে এই দুই দোকানে আপনে ইন্ডিয়ান বিভিন্ন নামি দামি ব্রান্ডের মেয়েদের ভালমানের অরজিনাল থ্রী পিস্ জামা পাবেন। এখানে একদমে সব কিছু বিক্রি হয়। তবে আপনে বললে তারা ৫-১০% ছাড় দিবে। এরা মোটামোটি কমই দাম রাখে। আর এখানে আসলে সফ্ট ড্রিঙ্কস ফ্রি। নিউ মার্কেটে প্রতারিত না হতে চাইলে এখানে একবার ঘুরে যেতে পারেন।

শ্রী লেদার
শ্রী লেদার এ সস্তায় ভালমানের ব্যাগ, জুতা পাওয়া যায়। ইন্ডিয়ায় আসলে একবার হলেও এখানে ঘুরে যাবেন। বাচ্চা, ছেলে, মেয়েদের চামড়ার জুতা, স্যান্ডেল, হাত ব্যাগ, কাঁধ ব্যাগ, মানি ব্যাগ, লাগেজ, বেল্ট, মোজা, জ্যাকেট, ইত্যাদি সব কিছুই অনেক সস্তায় এখানে পাবেন। বিশাল বড় শোরুম। একবার ঢুকলেই মাথা নষ্ট। প্রচুর কালেকশন্। আমাদের বাটা, এপেক্স এখানে জিরো। আর দাম আমাদের দেশের থেকে কয়েকগুন কম। এক বাটা জুতার দাম দিয়ে কয়েক জোড়া কিনতে পারবেন।

বিগবাজার
বিগবাজার একধরণে সুপার শপ। আমাদের দেশের স্বপ্ন, আগোরার মতো। তবে এখানে রান্নাবান্নার জিনিসপত্র ছাড়াও দরকারি প্রায় সব কিছুই পাওয়া যায়। আর আকারে আসলেই অনেকেই বিগ। এক জায়গায় আপনে জামাকাপড়, ব্যাগ, প্যান্ট, খাবার আইটেম, কসমেটিকস ইত্যাদি সব কিছুই পাবেন। আর এখানে সব সময়ই বিভিন্ন অফার চলতে থাকে। ইন্ডিয়া আসলে একবার হলেও এখানে ঘুরে যাবেন। কলকাতা নিউ মার্কেটের কাছেই এর একটি আউটলেট রয়েছে।

গড়িয়াহাট
মেয়েদের যেকোনো ধরণের সিল্ক, জামদানি, কাতান, সুতি ইত্যাদি নানা ধরণের শাড়ি সহ ভাল দামে ব্র্যান্ডেড ও সাধারণ জামাকাপড় পাবেন এখানে। নিউ মার্কেট এর পরে যদি এমন কোনো জায়গা থাকে যেখানে খুব ভালো দামে ব্র্যান্ডেড ও সাধারণ জামাকাপড় কিনতে পাওয়া যায়, তাহলে এই গড়িয়াহাট মার্কেটই হল তার যোগ্য। দোকান বা ফুটপাথ যেকোনো জায়গায় কেনাকাটা করে মজা।

মেট্রো প্লাজা
হো চি মিন সরণীর ওপর এই শপিং মলে ব্র্যান্ডেড পোশাক যেমন পাওয়া যায়, তেমনই পাবেন নন-ব্র্যান্ডেড । এছাড়া জুতো, ব্যাগ, নানা অ্যাক্সেসরিজ ও পাবেন।

শ্রীরাম আর্কেড
কলকাতার প্রথম সারির শপিং মল এর মধ্যে এটি একটি। আধুনিক ডিজাইনের পোশাক যেটি চাইবেন, তাই এখানে পাবেন। ফিশ-নেট স্টকিংস ও নানা কাজের জামাও যেমন পাবেন তেমনি সাংঘাতিক সুন্দর ও তাক লাগানো লেহেঙ্গা ও শরারা পেয়ে যাবেন।

আশা করি লেখাটি আপনারা সবাই খুব উপভোগ করেছেন। লেখাটি আপনার কেমন লাগল জানালে ভালো হয়। কলকাতা ভ্রমণের সবগুলো ভিডিও দেখার জন্য আমাদের ইউটিব চ্যানেল ভিসিট করুন এবং সাবস্ক্রাইব করুন। প্রতিদিনকার কর্মকান্ড জানতে আমাদের ফেইসবুক পেজ ভিসিট করুন এবং লাইক করুন। আপডেট পেতে টুইটার, গুগল প্লাস এ ও আমাদের ফলো করতে পারেন। সবাই কে ধন্যবাদ। হ্যাপি ট্রাভেলিং!!

Published by রাশেদুল আলম

আমি পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। টেকনোলজি নিয়ে কাজ এবং লেখালেখি করলেও ঘুরে বেড়াতে আমার ভীষণ ভাল লাগে। তাই যখনই সময় পাই বেড়িয়ে পরি। সবুজ প্রকৃতি আমায় সব সময়ই কাছে টানে। আমি অনেককেই দেখেছি কোনো প্রকার প্রস্তুতি ছাড়াই ঘুরতে বেড়িয়ে পরে। আর নানা ধরণের ঝামেলায় পরে। অথচ ইন্টারনেট ঘেটে একটু ধারণা নিয়ে আসলেই তাদের ট্যুর টা অনেক ভাল হতে পারতো। তাই নিজের অভিজ্ঞতা গুলোকে এখানে শেয়ার করার চেষ্টা করি, যাতে অন্যরা উপকৃত হতে পারে।

Join the Conversation

2 Comments

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *